প্রশ্ন পত্র ফাঁস

প্রশ্ন পত্র ফাঁস নিয়ে এতো উদ্দীগ্ন হওয়ার কি আছে! বরং এই পরিশ্রম মেধা অন্যত্র ব্যবহার করলেই হয়। আর আগে আসলে আগে পাবেন ভিত্তিতে এ+ দিয়ে দিলেই খেল খতম!!! যে পাবলিক পরীক্ষা দেয়ার পর আবার বিশ্ববিদ্যালয় পরীক্ষাই দিতে হবে কেন কষ্ট করে নানা ঢং এর পাবলিক পরীক্ষা দিতে হবে?

ভর্তি কোচিং গুলারে ইশটরং(!) করলেই হয়! এই সব কোচিং সেন্টাররাই নাকি শিক্ষার্থীদের বেজমেন্ট ঠিক করে দিচ্ছে 😛 ১০-১২ বছরের শিক্ষা জীবন শেষ করে যে শিক্ষা ব্যবস্থায় বেজমেন্ট তৈরি হয় না সেই একই ব্যবস্থায় কোচিং সেন্টারগুলো ৬মাসেই বেজমেন্ট করে দিচ্ছে। আহা সময় এবং শ্রম এর কত সাশ্রয়! আহা আহা!

প্রশ্ন পত্র ফাঁস নিয়ে জাফর ইকবাল স্যার চিন্তিত হন, সুশীলরা চিন্তিত হন। আর আমার ভালো লাগে। 🙂 আমার কথা হৈলো, দে সব ফাঁস কৈরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *