আত্মহত্যা সংবাদ

– ট্রেনে কাটা পড়ে কিশোরের মৃত্যু, চিরকুট উদ্ধার
– আমার লাশটি আঞ্জুমানে পৌঁছে দেবেন
– খিলগাঁওয়ে যুবকের আত্মহত্যা বেকারত্বের হতাশা থেকে ট্রেনের নিচে ঝাঁপ
(বাংলামেইলে পড়া গত ২দিনের একটি সংবাদের শিরোনাম)

সব প্রসংগ নিয়ে সিকুয়েল নিউজ করতে হবে তা ঠিক নয়। আত্মহত্যার মতন বিষয়গুলো খুব সেন্সসেটিভ। নিউজ করার আগে ভাবা উটিত, এই নিউজটা কেবলই সংবাদ হচ্ছে, না নতুন আরেকজন হতাশায় নিমজ্জিত কাওকে প্রণোদিত করছে আত্মহত্যায়। সংবাদ মাধ্যমগুলো কি ম্যাসেজ দিতে চায় আমি বুজতে পারি না। হতে পারে এটা আমার সমস্যা। আমি কম বুজি। আমারও জানা নাই, এই ধরণের সংবাদগুলো কিভাবে পরিবেশিত হতে পারে! এই বিষয়ে বিশিষ্ট কলাম লেখকরা কি কলম ধরবেন। একটা বিস্তারিত লেখা লিখবেন। এতো হতাশায় ভিড়ে, আশার আলো তো আছে! সেই আশার আলো দেখিয়ে কয়টা রিপোর্ট করা হয় পত্রিকায় সেটাই আমার প্রশ্ন।

একটা মৃত্যুতে ৩টা রিপোর্ট হলে, বিনোদন আর খেলার পাতা না ভরে লাইফ স্টাইল জাতীয় লেখা না ভরে এমন কিছু সংবাদ করা যা সত্যি ই উৎসাহিত করবে। উদ্দীপনা দিবে। ভালো ভালো সংবাদগুলো প্রমোট করা দরকার। আমার টাকা পয়সা থাকলে এমন একটা পত্রিকা বের করতাম যেখানে ৯০ ভাগ থাকতো মানুষের ভালোর খবর। আর ১০ ভাগ থাকতো কেবল অন্যান্য খবর। কারো যদি বেশি জানার দরকার হত ঘেটে জেনে নিলেই পারবে।

সব কিছু নিয়ে পত্রিকার কাটতি বাড়ানোর চিন্তা ঠিক নয়। কিছু দায়বদ্ধতা থাকেই। সেটা উপেক্ষা করে চলা যায় না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *