আপনারা মাথাওলা লোক একটু চিন্তা ভাবনা করিয়েন। একটু মগজ গলাইয়া দিয়েন।

ফেসবুকের একাউন্ট খুলতে নূন্যতম বয়স লাগে ১৩ বছর। আর গুগল একাউন্ট খুলতেও লাগে ১৩ বছর। তবে, নেদারল্যান্ড এর লোকজনের বয়স মনে হয় বাড়ে একটু দেরিতে। তাদের ১৬ বছর না হলে একাউন্ট খুলতে পারেন না।

ঘটনা হচ্ছে, আমাদের দেশের ছোট ভাই বোন রা একাউন্ট করেন। সাধারণত ১৩ বছর এর আগে একাউন্ট করতে গেলে তারা জন্মসালটা বাড়িয়ে দেন। যেমন, এক ছোট ভাই ক্লাশ ৮ এ পড়ে। তার বয়স আসে ১২ বছর। সে একাউন্ট করার জন্যই বয়স দিছে ১৯৮০!!!

১৮ বছরের নিচে সিম কার্ড কেনা যাবে না। আমার ছোট ভাই এর বয়স ১৮ বছর হয় নাই। কিন্তু আমার দেয়া সিম কার্ড ব্যবহার করছে। মোবাইল ছিনতাই হবার পর বাধ্য হয়ে সিম উঠাতে হলো আম্মার নামে। কারণ, ১৮+ হৈতে হবে।

আরেকটা মজার ব্যাপার, এক প্রতিযোগিতায় রেজিস্ট্রেশন করতে হবে অনলাইনে। খুব ভালো বিষয় বটে। অনলাইনে যে ডাটাগুলো চাওয়া হচ্ছে তার মধ্যে খটকা লাগলো, মোবাইল নাম্বার, ইমেইল, এবং ফেসবুক একাউন্ট। আমার প্রশ্ন হলো প্রতিযোগিতাটাতে বাচ্চারাও অংশ নিবে। তাদের তো ইমেইল একাউন্ট খুলতে পারার কথা না। কিংবা ফেসবুক একাউন্ট টা কি খুব জুরুরী কিছু? এখন আপনি বলতে পারেন, তুমি তো বলদ একটা! আরে মা বাবার নাম্বার ইমেইল দিয়ে খুলবে।

হা ভাই আমি বলদই। বুঝি সুঝি কম। কেন রেজিস্ট্রেশন ফর্ম টাতে কি উল্লেখ রাখা যেত না, অভিভাবকের ইমেইল, অভিভাবকের ফোন নাম্বার? আর ফেসবুক রেজিস্ট্রেশন এর জন্য জুরুরী কেমনে জানা ছিল না। এভাবে ফেসবুক রে কত টা শক্ত আর পাকাপোক্ত করতেছি সেটা আমরা হয়তো বুজতে পারতেছি না। দিন গড়াইলে টের পাইবেন সবাই। শেকড় বাড়ার সময় টের পাওয়া যায় না। বাড়ার সময় থাকে মাটির তলে। আর যখন বেড়ে বিশাল আকৃতি নেয় তখন নমুন প্রদর্শন করে মাত্র।

নিয়ম কানুন যায় করেন, আপনারা মাথাওলা লোক একটু চিন্তা ভাবনা করিয়েন। একটু মগজ গলাইয়া দিয়েন। আমার মতন বলদ লোকরা বিভ্রান্ত কম হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *